Bitcoin News

লাইট কয়েন কি? Learn about what is litecoin- LTC Price

what is litecoin LTC price

Litecoin হচ্ছে একটি ডিসেন্ট্রালাইজড ক্রিপ্টোকারেন্সি। এই লাইট কয়েন টি তৈরি করেছিলেন Charlie Lee নামে একজন ব্যক্তি 2011 সালে। এটি সিলভার টু বিটকয়েন নামে পরিচিত। এটির সংক্ষিপ্ত নাম LTC. Litecoin হচ্ছে একটি জনপ্রিয় alts coin. গুগল থেকে চাকরি শেষ করা একজন ব্যক্তি চার্লি লি এর লাইট কয়েন প্রজেক্টটি ডেভলপ করতে সাহায্য করেন। ক্রিপ্টোকারেন্সি জগতে লাইট কয়েন খুবই জনপ্রিয় একটি কয়েন কারণ এটি বিটকয়েনের অনুসারি। বিটকয়েন এর দাম বাড়লে লাইট কয়েনের দাম বাড়ে আবার বিট কয়েনের দাম কমলে Litecoin এর দাম কমে।

Litecoin এর নিজিস্ব ব্লকচেইন রয়েছে। লাইট কয়েন দেখতে সিলভার কালারের তাই এটিকে সিলভার সোনা বলা হয়। অন্যদিকে বিটকয়েন সোনার বিপরীতে ধরা হয়। বিটকয়েনের মত Litecoin একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি ডিজিটাল মুদ্রা। যেটি পেয়ার টু পেয়ার, সিকিউর, খুব কম সময়ে এবং কম খরচে ট্রান্সকেশন করা যায়। লাইট কয়েন এর মালিক নিজেই Litecoin কে Bitcoin এর পরিপূরক হিসেবে বর্ণনা করেছেন। বিটকয়েন ব্লকচেইন কে ডেভলপ করার পর কম্পিউটার ডেভলাপার দ্বারা লাইট কয়েন ব্লগচেইন কেও আপডেট করা হয়েছে। বিটকয়েনের অনুসারী হয়ে Litecoin চলে।

একটি প্রমান হিসেবে বলা যায় বিটকয়েন SHA-256 এর বদলে Scrypt Hash ফাংশন ব্যবহার করে। এই টেকনোলোজি ১০ মিনিটের মধ্যে ২.৫ মিনিট পর পর চার গুন দ্রুত সময়ে ব্লক তৈরি করে যেখানে মোট ইউনিট এর সংখ্যা ২১ মিলিয়ন সেখানে ৮৪ মিলিয়ন ইউনিট। মাইনিং এর শ্রমিকরা ২০১৯ সালের আগষ্ট মাস থেকে প্রতিটি বৈধ ব্লকের জন্য ১২.৫ টি লাইটকয়েন পায়।

লাইট কয়েনের উৎপত্তি

২০১১ সালের ১৩ অক্টোবর Litecoin Network এর উৎপ্তি হয়। সে সময় Alts Coin এর মধ্যে মাত্র ৮ টি কয়েন বিদ্যামান ছিলো। সেই কয়েন গুলো হলো:

  • Namecoin
  • Ixcoin
  • I0coin
  • Solidcoin V1 & V2
  • Tenenrix
  • GeistGeld
  • Faribrix

Alts কয়েন গুলো সবই বিটকয়েন সোর্স কোড ব্যবহার করে চলতো, তবে সামান্য কিছু পরিবর্তন করে। এখন সব কয়েন অত্যাধুনিক হওয়ার পর তাদের নিজেদের নেটওয়ার্ক তৈরি করে। সম্পদ হিসাবে লাইট কয়েন ডিজিটাল মুদ্রার কার্যকারিতা পূরণ করতে বিটকয়েনের মতো এটিও ডিজিটাল মার্কেটপ্লেস এ ভূমিকা রাখে। এটিও বিটকয়েন সহ অন্যান্য কয়েনের মত বাজার মুল্য ওঠা-নামা করে। চার্লিনর উৎপত্তি করা Litecoin বিটকয়েনের ছোট ভাই হিসেবে পরিচিত এবং সামাজিক নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এর পরিচয় ব্যপক বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে। এটি বিট কয়েনের ন্যায় মার্কেটক্যাপ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০১৪ সালে থেকে অনেক Alts coin এর মূল লক্ষ ছিলো বিট কয়েন কে প্রতিহত করা এবং এর পজিশনে যাওয়া এবং তারা নিজেদের জন্য নতুন ব্লকচেইন তৈরি করবে যা সহজে এবং কম ফি এর মাধ্যমে লেনদেন করবে, অথচ এই প্রকল্প গুলি ৯৯% ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়েছে। অথবা একেবারে শেষ হয়ে মার্কেট থেকে বিতারিত হয়ে গেছে। বিন্তু লাইট কয়েন তাদের থেকে ভিন্ন ছিলো। এটি একটি প্রাচীনতম ক্রিপ্টোকারেন্সি এবং বিটকয়েনের মত সুপ্রতিষ্ঠ।

লাইট কয়েন কিভাবে কিনবেন?

Litecoin হচ্ছে অন্যতম কয়েনগুলির মধ্যে একটি। বিশ্বের বড় বড় এক্সচেন্জারে এটি কেনা বেচা হয়। এখানে আমি ওইসব মার্কেটপ্লেস এর নাম বলবো না, আপনারা যদি কিনতে চান তাহলে গুগল থেকে জেনে নিতে পারেন। উক্ত প্লাটফর্মে যদি আপনারা ইউরো বা স্টেবল কয়েন দিয়ে কোন প্লাটফর্ম থেকে লাইট কয়েন কিনতে পারবেন। তারপর আপনি লাইট কয়েনগুলি উক্ত প্লাটফর্ম বা যেকোন লেজারযুক্ত পপুলার ওয়ালেটে এগুলো সংরক্ষণ করতে পারবেন। সাধারণত লাইট কয়েন বা অন্যান্য কয়েনগুলি বিভিন্ন বক্তিগত ওয়ালেট বা হার্ডওয়ার লেজার যুক্ত wallet এ সংরক্ষণ করা হয়।

অন্য কয়েনের তুলনায় লাইট কয়েনের সুবিধা?

Lite coin ২০১১ সালে থেকে আজ পর্যন্ত খুব সুন্দর এবং সাবলীল ভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সি বাজারে টিকে আছে। এটি বিটকয়েন এবং ইথেরিয়ামের সাথে তাল দিয়ে চলে। অনেক বিগিনার আছে যারা সুধু মাত্র বিটকয়েন ইথেরিয়াম এবং লাইট কয়েন সহ আরো কয়েকটি কয়েন চিনেনে অথচ Alts coin আরো শতধাধিক রয়েছে তারা সেটা জানে না। Lite coin কে পৃথিবীর সমস্ত Exchanger সার্পোট করে অর্থাৎ সব এক্সচেন্জারে লিষ্টেড আছে। লাইট কয়েনের ব্লকচেইন ৯ বছর ধরে সফলতার সাথে কোন রকমের সমস্যা ছাড়াই চলছে এবং সিকিউরিটির ক্ষেত্রে অত্যান্ত শক্তিশালী। এটির ট্রান্সকেশন ফি বিটকয়েন নেটওয়ার্কের তুলনায় কম। লাইটকয়েন সমস্ত নেটওয়ার্ক আরো বেশি উন্নত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

লাইট কয়েনের পূর্ব ইতিহাস

২০১১ সালে লাইটকয়েন এর দাম যা ছিলো ২০১৬ সাল পর্যন্ত তার এত বেশি পরিবর্তন দেখা যায়নি, কিন্ত ২০১৭ সালে শুরুতে একটি বিট কয়েনের দাম ছিলো মাত্র ৫ ডলার কিন্তু বছরের শেষের দিকে সেটা ৩৫০ ডলার পর্যন্ত চলে গেছে। তারপর ক্রিপ্টোকারেন্সির অধপতনের মার্কেটে লাইট কয়েন ৩০ ডলারে নেমে আসে। এই সময়ে লাইট কয়েনের প্রতিষ্ঠাতা চার্লি লি প্রকৃতপক্ষে ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছিলেন কারণ উর্ধ মার্কেটে তার ব্যপক লাইটকয়েন বিক্রি হয়েছিলো। ২০২০ সালে নতুনভাবে আবারো লাইটকয়েন ১৭০% বৃদ্ধি পেয়ে সর্ব কালের শ্রেষ্ঠ পজিশনে পৌছে যায়। তবে ধারণা করা যায় যে ২০২২ সালের শুরুতে লাইটকয়েন ৫০০-৭০০ ডলারে যাবে যদি বিটকয়েন ১ লাখ ডলারের কাছাকাছি পৌছে। যারা লাইটকয়েন কে সম্পদ হিসেবে বেছে নিয়েছে তার লাভাবান হতে পারে।

Litecoin লেনদেন কেমন নিরাপদ হতে পারে?

এটি Bitcoin এর চেয়ে দ্রুততম ট্রানজেকশন সম্পন্ন হয়। বিট কয়েন ট্রান্সকেশন হতে যদি ১০ মিনিট সময় নেয় তাহলে লাইট কয়েন ২.৫ মিনিটে লেনদেন সম্পুর্ণ হয় এজন্য লাইটকয়েনের প্রতিটি ব্লক তৈরি জন্য সর্বোচ্চ সময় লাগে উক্ত সময়ই লাগে। লাইটকয়েনের প্রতিটি ব্লকের সর্বোচ্চ সাইজ 1MB হওয়ায় এটি দ্রুত গতিতে ট্রান্সকেশন হতে পারে। একটি ব্লকচেইনের নিরাপত্তা তার Hash rate এর উপর নির্ভরশীল। Hash rate একটি পরিমাপ নির্ধারক সিস্টেম বা ইউনিট যা হার্ডওয়্যার এর ভার্চুয়াল গতিকে কম্পিউটিং করে।

লাইট কয়েন এর খারপা দিক গুলো কি?

Litecoin এর খারাপ দিক হলো সে বিটকয়েনের সাথে প্রতিযোগিতা করতে চায় এবং মার্কেটপ্লেসে তার একটি নিজিস্ব অবস্থান করতে চায় যাতে কেউ বলতে না পারে যে, বিটকয়েন এবং ইথুরিয়ামের সাপোর্ট লাইটকয়েন তার অবস্থান পরিবর্তন করে। Ceyptocurrency মার্কেটে সে এই সংগ্রামই করছে। তাই লাইট কয়েন যদি এরকমই করে তাহলে দেখা যাবে Bitcoin তার অগ্রগতির ধারা অব্যহত রেখে সফল হয়েছে কিন্তু লাইটকয়েনের বাজার বড় রকমের প্রশ্নবিদ্ধ হতে পারে। আরো যে খারাপ বিষয়গুলো রয়েছে তা হলো নতুন করে যে Blockchain Technology তৈনি হচ্ছে তা অনেক উন্নত, দ্রুতগতির, সিকিউর। সেই তুলনায় লাইটকয়েন ব্লকচেইন টেকনোলোজি আপডেট ধীরগতি সম্পুর্ণ এবং এখনো অনেকটাই পিছিয়ে। কারণ লাইপকয়েন এখনো ইথুরিয়াম নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে। ETH Network এর চেয়ে আধুনিক Decentralized Finance, NFTs, Gaming platform চলে এসেছে। যা লেনদেনের ক্ষেত্রে খুবই স্মার্ট।

লাইট কয়েন মাইনিং এর ব্যখ্যা

আমরা জানি প্রত্যেকটি ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেন হয় হার্ডওয়্যার টু হার্ডওয়্যার। দুজন লাইটকয়েন ট্রান্সকেশন্যাল ব্যক্তির মধ্যে তৃত্বীয় একজন ব্যক্তি থাকে, যে তাদের লেনদেন কে প্রসেস করে সম্পন্ন করে এবং এ কাজটি করা হয় তার মাইনিং হার্ডওয়্যার এর মাধ্যমে এর এটাকে বলা হয় Litecoin মাইনিং। যিনি এটি সম্পন্ন করে তাকে মাইনর বলে। প্রতিটি ক্রিপ্টোকারেন্সি যেমন: বিট কয়েন, লাইট কয়েন, ডগি কয়েন ইত্যাদি ট্রান্সকেশন করার পর মাইনররা একটি নিদিষ্ট রিওয়ার্ড পায়, আর এটা কেউ বলা হয় Cryptocurrency mining. এভাবে সারা পৃথিবীতে যত মাইনর রয়েছে এবং তারা মাইনিং এর ফলে যে reward পায় সেটাকেই নতুন জেনারেটেড ক্রিপ্টোকারেন্সি বলে।

বিটকয়েন কি What is bitcoin | Bitcoin Price

এখন মাইনররা যে কয়েনের উপর মাইনিং করবে নতুন করে সেই কয়েনটাই উৎপন্ন হবে। যেকোন ক্রিপ্টোকারেন্সি বা লাইট কয়েন উৎপাদন করতে হলে আগে প্রসেসর ব্যবহার হত কিন্তু এখন GPU ব্যবহার করা হয় কারণ এর প্রসেসিং পাওয়ার অনেক বেশি। এখন অবশ্য মাইনিং করার জন্য ডেডিকেটেড ক্রিপ্টো অ্যালগরিদম (ASICs) তৈরি করা হয়েছে যা GPU সিস্টেমের চেয়ে ব্যায়বহুল। আগে সারা বিশ্বে মাইনর এর সংখ্যা কম ছিলো কিন্তু ধীরে ধীরে এখন তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০১ সালে ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেন এর সুবিধা জানার পর এর ব্যবহার দিন দিন দ্রুত বাড়ছে, ফলে মাইনরও অনেকগুন বেড়ে গেছে। সেই সাথে যদি সিঙ্গেল ভাবে লাইপকয়েনের কথা বলি তাহলে এটির মাইনরও প্রচুর বেড়েছে। Litecoin এর জনক চার্লি লি Bitcoin এর চেয়ে আলাদা মাইনিং অ্যালগরিদম তৈরি করার সিধান্ত নিয়েছিলেন। সেটি কার্যকর করবে বলে আশাবাদী।

এবার লাইট কয়েনের কমিউনিটির কথা বলি। একটা সময় Litecoin এর প্রতিষ্ঠাতা সোস্যাল মিডিয়াতে তেমন একটা অ্যাক্টিভ থাকতো না। পরবর্তীতে তিনি মুটামুটি ভাবে সক্রিয় থাকতো। কিন্তু ২০২১ সালে তিনি বেশ অ্যাক্টিভ থাকতেন। তার লাইটয়েন Community group, টুইটার, রিডিট এ অনেক মানুষ যুক্ত আছে এবং এদের কমিউনিটি টি অত্যান্ত শক্তিশালী। চার্লি লি ২০১৭ তে লাইট কয়েন ফাউনডেশন তৈরি করেছিলেন। এই ফাউনডেশন লাইট কয়েনের বিস্তার লাভ এবং সর্বপরি IT উন্নয়নের জন্য করেছিলেন। এইটির মাধ্যমে তিনি জানিয়েছিলেন লাইট কয়েন একটি ওপেন সোর্স অ্যালগরিদম যা যেকোন মানুষ ব্যবহার করতে পারবে। এক ওয়ালেট থেকে আরেক ওয়ালেটে পাঠানো যাবো।

CurrencyRate.Today

2017 সাল থেকে ২০২১ সালের প্রতি মাসে শুরুতে এবং শেষে লাইটকয়েন প্রাইস কেমন ছিলো তা দেখানো হলোঃ

2021Low Price High Price Change % (±1)
January$112 $854.5
February$126$24727
March$163$23019
April$192$33537
May$108$41230
June$105$19723
July$104$1480.38
August$135$19118.5
September$139$23310.5
October$151$21425
November$188$2958.4
December
2020Low PriceHigh Price Change % (±1)
January$39$8165
February$58$8414
March$24$6332
April$37$5018
May$39$491
June$39$509
July$40$5941
August$51$685
September$41$6424
October$43$6020
November$51$9357
December$70$13941
2019Low PriceHigh PriceChange % (±1)
January$29$405
February$30$5345
March$44$6332
April$60$9722
May$71$12154
June$98$1457
July$76$12619
August$58$10634
September$51$7912
October$47$624
November$42$6518
December$35$4713
2018Low PriceHigh Price Change % (±1)
January$135$30427
February$104$25123
March$109$17742
April$109$16627
May$110$18320
June$72$12731
July$74$942
August$48$7921
September$47$691
October$48$6218
November$27$5635
December$22$607
2017Low PriceHigh Price Change % (±1)
January$3$56
February $3$45
March $3$988
April $6$16123
May $15$3859
June$24$4952
July$34$577
August$417473
September$339824
October$48690.24
November$5010354
December$82420164

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button